1. jitsolution24@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : Support :
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

আলোর মুখ দেখলো না পিপলস ব্যাংক

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১৬৭ Time View

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখলো না যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আবুল কাশেমের পিপলস ব্যাংক। লেটার অব ইনটেন্টের (এলওআই) মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন নাকচ করায় আর কার্যক্রম শুরু করতে পারবে না পিপলস ব্যাংক। ভবিষ্যতে ব্যাংকটির উদ্যোক্তারা একই নামে অথবা নতুন নামে লাইসেন্স পাওয়ার আবেদন করতে পারবে।

২০১৯ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি তিনটি নতুন ব্যাংককে (পিপলস ব্যাংক, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক এবং সিটিজেন ব্যাংক) লেটার অব ইনটেন্ট (এলওআই) প্রদান করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর মধ্যে বেঙ্গল ও সিটিজেন ব্যাংক ইতিমধ্যে তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে। কিন্তু পিপলস ব্যাংক পরিশোধিত মূলধনসহ নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণ করতে বারবার ব্যর্থ হয়েছে এবং আরও সময় চেয়ে আবেদন করে আসছে।

সবশেষ ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পিপলস ব্যাংকের লেটার অব ইনটেন্টের (এলওআই) মেয়াদ শেষ হয়। তার আগেই এলওআইর মেয়াদ আবেদন করেছিল পিপলস ব্যাংকের উদ্যোক্তারা। একই সঙ্গে ব্যাংকটির কার্যক্রম শুরুর শেষ চেষ্টা হিসেবে মালিকানায় যুক্ত করতে চেয়েছে অলরাউন্টার ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে। তারপরও কার্যক্রম শুরুর দিকে আগাতে পারলো না পিপলস ব্যাংক।

বৃহস্প‌তিবার (২০ জানুয়া‌রি) বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্ষদ সভায় পিপলস ব্যাংকের লেটার অব ইনটেন্টের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন নাকচ হ‌য়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, প্রস্তা‌বিত পিপলস ব্যাংকের এলওআইর মেয়াদ শেষ হয়েছে ২০২১ সা‌লের ৩১ ডি‌সেম্বর। নির্ধা‌রিত সম‌য়ের মধ্যে তারা শর্ত পূরণ কর‌তে ব্যর্থ হওয়ায় আর তাদের এলআইর মেয়াদ বাড়া‌নোর আবেদন বা‌তিল করা হ‌য়ে‌ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র আরও বলেন, লেটার অব ইনটেন্টের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্ষদ সভায় নাকচ হওয়ার ফলে পিপলস ব্যাংকের কার্যক্রমের সমাপ্তি ঘটলো। এখন তারা চাইলে একই নামে অথবা নতুন নামে ব্যাংকের লাইসেন্স পাওয়ার আবেদন করতে পারেন।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, আগের ১২ জন উদ্যোক্তা প‌রিচাল‌কের ম‌ধ্যে এখন প্রস্তা‌বিত ব্যাংকটির চেয়ারম্যান আবুল কা‌শেম ও তাঁর স্ত্রী আছেন। কার্যক্রম শুরু করতে নতুন ক‌রে আরও ২১জন প‌রিচাল‌ক নিয়োগের আবেদন ক‌রে‌ছেন। ২১ জনের ম‌ধ্যে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও তার মা শিরিন আকতারও রয়েছে।

দীর্ঘ তিনবছরেরও বেশি সময় ধরে প্রস্তাবিত পিপলস ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ব্যাংকিং ব্যবসার জন্য লাইসেন্স পাওয়ার চেষ্টা করেছিল। তবে এলওআইর শর্ত পুরণ না হওয়ায় লাইসেন্স পাচ্ছিল না। ফলে কয়েক দফা এলওআই’র মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান পিপলস ব্যাংকের দুটি পরিচালক পদের মালিক হতে চেয়েছিলেন, যা অবশেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পর্ষদ সভায় নাকচ হলো।

২০১৯ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক তিনটি নতুন ব্যাংককে (পিপলস ব্যাংক, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক এবং সিটিজেন ব্যাংক) লেটার অব ইনটেন্ট (এলওআই) প্রদান করে।

এর মধ্যে বেঙ্গল ও সিটিজেন ব্যাংক ইতিমধ্যে তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে। কিন্তু পিপলস ব্যাংক পরিশোধিত মূলধনসহ নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণ করতে বারবার ব্যর্থ হয়েছে এবং আরও সময় চেয়ে করা আবেদন শেষ পর্যন্ত বাতিল হওয়ায় আর আলোর মুখ দেখলো না পিপলস ব্যাংক।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022