1. jitsolution24@gmail.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বুরো বাংলাদেশ গ্রাহকদের সঞ্চয় ও ঋণের কিস্তি পরিশোধ উপায়-এ স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও গ্রীন ডেল্টা সিকিউরিটিজ চুক্তি গুলশানে পদ্মা ব্যাংকের আরেকটি শাখার উদ্বোধন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ১৩তম এমটিও ব্যাচের দ্বিতীয় ধাপের ফাউন্ডেশন ট্রেনিং শুরু যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ বাড়ানোর আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দল যাকাত ক্যালকুলেটরসহ ইসলামিক জীবনধারার সেবা নিয়ে এলো ‘নগদ ইসলামিক’   এমএফএস’র অপব্যবহার রোধে জেলা পুলিশ-বিকাশের কর্মশালা এবার রাজবাড়ীতে ব্র্যাক ব্যাংকে নারী উদ্যোক্তাদের ডিজিটাল ব্যবসার কর্মশালা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে “বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন” পালিত ব্যাংকিংখাতে ওমিক্রনের নেতিবাচক প্রভাব

গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. ইউনূসের ব্যাংক হিসাব তলব

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৬০ Time View

শান্তিতে নোবেল জয়ী ও গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। ড. ইউনূসের ব্যাংক হিসাবে লেনদেনের দুইবছরের তথ্য চেয়েছে সংস্থাটি।

২০ জানুয়ারি বিএফআইইউ থেকে দেশে কার্যরত ব্যাংকগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে, ড. মুহাম্মদ ইউনূসের জাতীয় পরিচয়পত্রের পুরোনো এবং নতুন (দুটি) নম্বর উল্লেখ করা হয়েছে। একই সঙ্গে ড. ইউনূসের নামে পরিচালিত ব্যাংক হিসাবগুলোতে লেনদেনের যাবতীয় তথ্যের সফঠ কপি ২৫ জানুয়ারির মধ্যে বিএফআইইউর কাছে পাঠাতে বলা হয়েছে।

তবে যেসব ব্যাংকে ড. ইউনূসের নামে ব্যাংক হিসাব নাই সেসব ব্যাংকেও ড. ইউনূসের নামে কোনো ব্যাংক হিসাব নেই মর্মে ‘আমরা কোনো হিসাব সংরক্ষণ করি না ‘ জানাতে হবে।

বিভিন্ন ব্যাংকের কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ব্যাংক হিসাবের তথ্য দ্রুত সরবরাহ করার নির্দেশনা দেওয়ার পাশাপাশি এসব তথ্যের জন্য ব্যাংকের শাখাগুলোতে যোগাযোগ না করতে বলা হয়েছে বিএফআইইউর চিঠিতে।

ড. মুহাম্মদ ইউনূস ২০০৬ সালে গ্রামীণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন। ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির মাধ্যমে দারিদ্র দুরীকরণে তিনিই একমাত্র বাংলাদেশী শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022